শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২১ মুহররম ১৪৪১

১৪৫

মণিরামপুরে উদ্ধারকৃত সেই মরদেহের পরিচয় মিলেছে

প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৯  

যশোরের মণিরামপুরে মুক্তেশ্বরী নদী থেকে উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় মিলেছে। মরদেহটি যশোর শহরতলির পুরাতন কসবা এলাকার রাজিচের। 

রাজিচ ওই এলাকার আমিনুদ্দিনের ছেলে। তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে শহরতলীর রামনগর কাজিপুরে ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। রাজিচ পেশায় মটরগাড়ির রঙ মিস্ত্রি। শহরতলীর মুড়লী মোড়ে তার দোকান রয়েছে। 

মঙ্গলবার সকালে রাজিচের স্ত্রী সামছুন্নাহার ইতি যশোর সদর হাসপাতালের মর্গে মরদেহটি শনাক্ত করেন। এরপর ময়নাতদন্ত শেষে দুপুরে পুলিশ স্বজনদের কাছে রাজিচের মরদেহ হস্তান্তর করে। 

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী ইতি বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার দিকে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে মণিরামপুর থানায় এজাহার দাখিল করেছেন।

সামছুন্নাহার ইতি জানান, তার স্বামী গত ৯ মার্চ বিকেল ৫টার দিকে ব্যবসায়ীক কাজে খুলনা যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হন। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। অবশেষে মঙ্গলবার সকালে মর্গে এসে তার মরদেহ পাই। 

মণিরামপুর থানার এসআই আক্তারুজ্জামান বলেন, ব্যবসায়িক লেনদেনকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।  

সোমবার বিকেলে উপজেলার টেকারঘাট মুক্তেশ্বরী নদীর ব্রিজের নিচ থেকে অর্ধগলিত ভাসমান মরদেহ দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। এরপর সন্ধ্যা ৭টার দিকে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। 

দৈনিক যশোর
দৈনিক যশোর
এই বিভাগের আরো খবর