মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৫ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

৩১২

বিয়ার সাজনে সাজো কন্যা লো...

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২২ ডিসেম্বর ২০১৮  

বিয়ে মানেই মধুময় অধ্যায়ের সূচনালগ্ন। বিয়ের দিনটিকে তাই নজরকাড়া করে তুলতে প্রত্যেকেরই থাকে নানা পরিকল্পনা। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বিয়ের সাজ। বিয়ের সাজে কেউ চায় আধুনিকতা, কারও হয়তো ইচ্ছে থাকে সাজে ঐতিহ্যের ছোঁয়া। আধুনিকতা আর ঐতিহ্যের মাঝেও প্রতি বছর চলে নিরীক্ষা। তাই চিরচেনা বিয়ের সাজেও প্রতিনিয়ত দেখা যায় বৈচিত্র্য। তবে যেভাবেই সাজতে চান না কেন, সেজন্য ধারণা থাকা চাই বিয়ের সাজের চলতি ধারা সম্পর্কে।

বিয়ে তো আর একদিনের উৎসব নয়। পানচিনি, হলুদ সন্ধ্যা, বিয়ে, বৌভাতসহ নানা অনুষ্ঠান হয়। তাই সাজে এখন দেখা যায় ভিন্নতা। ট্রেন্ডি, ফিউশন, ট্রেডিশনালসহ একেকদিন একেক ধরনের সাজ বেছে নেন কনে। আবার সাজের ধরনেও থাকে ভিন্নতা। কেউ ন্যাচারাল লুক পছন্দ করেন তো কেউ একটু ভারি মেকআপ কিংবা উজ্জ্বল সাজ। একেবারেই ন্যাচারাল লুক ইদানীং ব্রাইডাল সাজের ট্রেন্ড পরিণত হয়েছে। বলিউড নায়িকা আনুশকা শর্মা থেকে নববধূ দীপিকা পাড়ুকোন, প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও ন্যাচারাল মেকআপে সেজেছেন। আর সাজবেন নাই বা কেন, এটাই যে এখন বিয়ের সাজের ট্রেন্ড। ন্যাচারাল মেকআপে বেইজ মেকআপটা এমনভাবে করা হয় যে, দেখতে মনে হয় কোনো মেকআপই নেই। এ ধরনের মেকআপের সঙ্গে চোখের সাজটা ন্যুড কিংবা জমকালো রাখতে পারেন।

আগেরকার দিনে লাল শাড়ি, লাল লিপস্টিক আর লালটিপ ছাড়া বউয়ের সাজ ভাবাই যেত না। দিন বদলেছে, বউ সাজে এখন এসেছে অনেক রং। তবে লাল ব্রাইডাল সাজের আবেদনই অন্যরকম। শুধু ট্রেডিশনাল নয়, মর্ডান ব্রাইডাল লুকেও লাল কালারে চেহারায় দ্রুত শার্পনেস বের করে আনা যায়। তাই ট্রেডিশনাল হোক, মর্ডান কিংবা ফিউশনই হোক লাল ধাঁচের কনে সাজ আজও অমলিন।

বিয়ের সাজে আরও কয়েকটি ধারা এখন মেনে চলা হচ্ছে। যেমন বিয়ের দিন ট্রেডিশনাল বিয়ের শাড়ির সঙ্গে মর্ডান বিয়ের সাজ এখন চলছে। ট্রেডিশনাল শাড়ির সঙ্গে স্মোকি আই মেকআপে বেশ মর্ডান এবং জমকালো লুক আনে। এক্ষেত্রে শাড়ির নকশার রঙের সঙ্গে মিলিয়ে আইশ্যাডোর রং নির্বাচন করুন। স্মোকি আই না চাইলে দুই রং দিয়ে চোখ সাজাতে পারেন। গাঢ় আইশ্যাডোর সঙ্গে লিপস্টিক বেছে নিন একশেড হালকা। ব্লাশন ব্যবহার করুন গ্লসি। বিয়েতে এখন গোল টিপের সঙ্গে খুব ছোট্ট করে হাতে আঁকা আল্পনার চল শুরু হয়েছে। এ ধরনের টিপ পরতে পারেন। থিমভিত্তিক বিয়ের সাজও এখন জনপ্রিয়। থিম হিসেবে বিয়ের অনুষ্ঠানের একেক পর্বে বেছে নেয়া হয় একেক রং। বর-কনে সবাই সাজে সেই রঙে। থিমের রংটা যদি খুব উজ্জ্বল হয় তবে মেকআপে হালকা শেড তুলে ধরুন। আর থিমের রং যদি হালকা হয় তবে সাজে উজ্জ্বলতা আনতেই পারেন। সাজটা আলাদা হয়ে ফুটে উঠবে। শাড়ির রং চিরায়ত হলেও চুলের সাজে আধুনিকতা এখন বিয়ের সাজের ট্রেন্ড। সাইটবার্ন, ফন্টসেটিন কার্ল খোলা চুল, ব্লোডাই এখন কনেদের পছন্দ। ফুলের পরিবর্তে চুলের বাঁধনে ড্রাইফুল, পার্ল, স্টোনের ব্যবহারও শুরু হয়েছে।

বিয়ের দিন ট্রেডিশনাল সাজপোশাক বেছে নিলে রিসিপশনে ট্রেন্ডি সাজপোশাকে বৈচিত্র্য আসে। আর তাই বিয়ের দিন শাড়ি পরলেও রিসিপশনে এখন অনেকেই গাউন, সারারা, লেহেঙ্গা, ঘাগড়ার মতো ট্রেন্ডি কিংবা ফিউশন পোশাক পরতে পছন্দ করেন। রঙের ক্ষেত্রে লাল, মেরুনের মতো উজ্জ্বল রং থেকে বেরিয়ে এদিন বেছে নিতে পারেন সোনালি, সফট পিংক, অ্যাশ, হালকা সবুজ, চাপা সাদার মতো সফট রং। পোশাকের সঙ্গে বদলে নিন রিসিপশনের সাজও। এদিন ট্রেন্ডি সাজে বেইজটাকে ন্যাচারাল রেখে সাজের কোনো একটা অংশ হাইলাইট করে সাজটা ফুটিয়ে তুললে ভালো লাগবে। রিসিপশনে হালকা রঙের পোশাকের সঙ্গে সোনালি বা ব্রাউন আইশ্যাডো ব্যবহার করুন। ট্রেন্ডি লুক আসবে। পোশাকের রং হালকা হলে লিপস্টিক বেছে নিন গাঢ় রঙের। এমন সাজের সঙ্গে টুইস্ট, সাইড কার্ল, লুজ বান, ব্লোডাই হেয়ার স্টাইল আভিজাত্য আনবে।

আজকাল পার্লারে পানচিনি, হলুদ সন্ধ্যা, বিয়ে, বৌভাতসহ প্রতিটি ব্রাইডাল মেকআপ পৃথকভাবে বা প্যাকেজ হিসেবে করা যায়। প্যাকেজ হিসেবে সাজলে বেশ সাশ্রয় হবে। এক্ষেত্রে বিউটিশিয়ানের সঙ্গে পরামর্শ করে প্রথমেই ঠিক করে নিন কোনদিন কোনভাবে সাজতে চান কিংবা মেকআপের ধরনটা কেমন হবে।

দৈনিক যশোর
দৈনিক যশোর