বুধবার   ২২ মে ২০১৯   জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৬   ১৭ রমজান ১৪৪০

৯১

বিলুপ্তির পথে ঐতিহ্যবাহী ঢেঁকি

প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারি ২০১৯  

অগ্রহায়ণ-পৌষ মাস এলেই যশোরে পিঠা আর পায়েশ তৈরীর ধুম পড়ে যায়। খাওয়া নিয়েও চলে হৈ-চৈ। এসব পিঠা তৈরি হয় নতুন চালের গুড়া দিয়ে। এককালে এসব চাল গুড়া করা হতো  ঢেঁকি দিয়ে। তবে যান্ত্রিকতার যাতাকলে দেশীয় ঐতিহ্যবাহী ‘ঢেঁকি’এখন কেবলই স্মৃতি। গুটি কয়েক বাড়িতে এখনো ঢেঁকি  দেখা গেলেও এর ব্যবহার কদাচিৎ।

একসময় যশোরের প্রত্যান্ত অঞ্চলে  চালের গুড়া-আটা তৈরীর একমাত্র মাধ্যম ছিল ঢেঁকি। বাড়ি বাড়ি তখন ধুপ ধাপ শব্দ শোনা যেতো। তবে এখন  তেল-বিদ্যূৎ চালিত  ধান ও চাল ভাঙ্গার মেশিন এখন মোড়ে মোড়ে। ফলে যশোর জেলায় বাড়ি বাড়ি আগের মত ঢেঁকির শব্দ পাওয়া যায় না। আগে এসব ঢেঁকি তৈরি হতো কাঁঠ দিয়ে। এখন সেসব কাঁঠ ব্যবসায়ীরাও রয়েছে মন্দায়। 

এদিকে গুটি কয়েক গ্র্রাম বাংলার ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে কেউ কেউ বাড়ীতে ঢেঁকি রাখলেও তারা ব্যবহার করছে না।  ফলে বর্তমান প্রজন্ম ঢেঁকি ছাটা চাল ও গুড়ার স্বাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

দৈনিক যশোর
দৈনিক যশোর
এই বিভাগের আরো খবর