মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৫ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

৭৫

বিজেপির প্রার্থী হচ্ছেন গম্ভীর!

প্রকাশিত: ১২ মার্চ ২০১৯  

১৫ বছরের ক্যারিয়ার শেষে গত ডিসেম্বরে ক্রিকেট থেকে অবসর নেন ভারতের সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর। ক্রিকেটের কমেন্ট্রি ছাড়াও একটি কমিউনিটি কিচেন চালান তিনি। সমসাময়িক রাজনীতি ও ঘটনাবলীর উপর বেশ কয়েকদিন ধরেই দৃঢ় মন্তব্য ও মতামত জানাচ্ছিলেন গৌতম গম্ভীর।

এবার দিল্লি থেকে বিজেপির প্রার্থী হিসাবে এপ্রিল-মে মাসের জাতীয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন সাবেক ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর। ৩৭ বছর বয়সী গৌতম নয়া দিল্লির মীনাক্ষী লেখির বর্তমান আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন। ওই নির্বাচনী এলাকারই রাজিন্দর নগরের বাসিন্দা তিনি। মীনাক্ষী লেখি রাজধানীর অন্য যে কোন একটি আসন থেকে লড়তে পারেন বলে আশা করা হচ্ছে। সম্প্রতি পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত গৌতম গম্ভীর যদিও রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে কোনও দিনই কিছু জানাননি। পাঞ্জাবের অমৃতসরে ২০১৪ সালে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলির নির্বাচনী প্রচারে হাই প্রোফাইল মুখ ছিলেন গৌতম গম্ভীর। যদিও ওই নির্বাচনে অরুণ জেটলি কংগ্রেসের অমরিন্দর সিংয়ের কাছে পরাজিত হন। মুখ্যমন্ত্রী হন অমরিন্দর।

রাজনৈতিক মহলে কানাঘুঁষো শোনা যাচ্ছিল যে শীঘ্রই নতুন ইনিংস শুরু করবেন এই প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার। তার টুইটার অ্যাকাউন্ট পুলওয়ামার সন্ত্রাসী হামলা বিষয়ক পোস্টেই এখন ভর্তি। সম্প্রতি সৈন্যদের শিশুদের শিক্ষা নিশ্চিত করার অঙ্গীকার নিতেও দেখা গিয়েছে তাকে। দিল্লির শাসকদল অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টির (আপ) অত্যন্ত সমালোচনাও করেছেন গৌতম গম্ভীর।

বিজেপির ইঙ্গিত যে, আপ এবং কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দিল্লিতে তুরুপের তাস হতে পারেন গৌতম গম্ভীর। বিজেপিকে রুখতে আপের সঙ্গে জোট গঠন করতে ব্যর্থ হয়েছে কংগ্রেস। ২০১৪ সালে দিল্লির সকল সংসদীয় আসনে জয়ী হওয়ার পর, বিজেপি আপের আসনের উত্থান দেখেছিল। রাজ্য নির্বাচনে দিল্লির বিধানসভার ৭০ টি আসনের মধ্যে মাত্র ৩ টি পেয়েছিল দেশের ক্ষমতাসীন দল, জয়ী হয় আপ।

রাজনীতিতে গৌতম গম্ভীর যোগ দিলে ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ হওয়া কীর্তি আজাদ, মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন, নবজোৎ সিধু এবং মোহাম্মদ কাইফের পথের নতুন পথিক হবেন তিনি। আগামী মাস থেকে শুরু হতে চলা লোকসভা নির্বাচনে ১২ মে দিল্লিতে ভোট হবে। ২৩ মে সাত দফার এই নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হবে।

দৈনিক যশোর
দৈনিক যশোর