শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২১ মুহররম ১৪৪১

১৫৩

কেশবপুরে ১ হাজার বোতল ফেনসিডিলসহ আটক ১

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

যশোরের কেশবপুরে একটি পাজেরো গাড়ি থেকে ১ হাজার বোতল ফেনসিডিলসহ চালককে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। আটককৃত চালকের নাম হৃদয় আহমেদ বাবু (৩৫)।

ডিবি সূত্র জানিয়েছে, ২৪ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে যশোরের কেশবপুর থেকে ধাওয়া করে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। পাজেরো উল্টে এসময় আহত হন চালক হৃদয় হোসেন বাবু। সে ঢাকার ধামরাই থানার কান্দিপুর এলাকার আজাদ খানের ছেলে।

২৫ ফেব্রুয়ারি ব্রিফিংয়ে জেলা গোয়েন্দা শাখা ওসি মারুফ হোসেন জানিয়েছেন, ওইদিন রাতে ডিবি পুলিশ গোপন খবরে কেশবপুরের বগা চৌরাস্তা এলাকায় অবস্থান নেয়। আনুমানিক রাত ২টার দিকে সাতক্ষীরার দিক থেকে সিলভার রঙের একটি পাজেরো (ঢাকা মেট্টো-ঘ-১৩-৭২৯৫) কেশবপুর হয়ে যশোরের দিকে যাচ্ছিল। ঘটনাস্থলে পৌঁছালে গাড়িটি থামানোর জন্য সংকেত দেয়া হয়। চালক হৃদয় হোসেন বাবু পুলিশ বুঝতে পেরে দ্রুত পাটকেলঘাটার দিতে চলে যায়। পিছু ধাওয়া নেয় পুলিশ। পাটকেলঘাটার কুমিরা দাতপুর এলাকার খান আতিয়ার রহমানের নির্মাণাধীন বাড়ির সামনে গিয়ে পাজেরোটি উল্টে যায়। সে সময় চালককে আটক করা হয়। পরে গাড়িটি তল্লাশি করে ১ হাজার বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়।

তবে গাড়িটি উল্টে যাওয়ার পরপরই গাড়ি থেকে ৩ জন পালিয়ে যায়। এদের মধ্যে একজন হলেন ঢাকার মোহাম্মদপুর থানার পশ্চিম কাফরুল মোল্লাপাড়া এলাকার মৃত মকবুল আহমেদের ছেলে ইউছুফ আহমেদ। এছাড়া বাকি দুজনের পরিচয় জানা যায়নি।

যশোর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক শফিউল্লাহ সবুজ জানিয়েছেন, হৃদয় হোসেন বাবুর বুকের আঘাত গুরুতর হওয়ায় তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করা হয়েছে। ডিবির ওসি জানান, খুলনা মেডিকেলে একই সাথে প্রিজন সেল থাকায় নিরাপত্তার স্বার্থে বাবুকে খুলনা মেডিকেলে স্থানান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

এদিকে আটকের সংবাদ পেয়ে চালক হৃদয় হোসেন বাবুর স্ত্রী তানিয়া যশোরে আসেন। তিনি জানিয়েছেন, বাবু ধামরাই থেকে ঢাকা পর্যন্ত মেক্সি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে। কিন্তু কীভাবে কার সাথে সে যশোরে এলো তা জানেন না। আর পাজেরোটি কার তা-ও তিনি জানেন না।

দৈনিক যশোর
দৈনিক যশোর
এই বিভাগের আরো খবর