রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২২ মুহররম ১৪৪১

৮৪

ইতিহাসের পাতায় ডাকসুর নেতৃত্ব

প্রকাশিত: ১১ মার্চ ২০১৯  

ভোরের আলো ফোটার পর পরই উৎসবে মেতে উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। দীর্ঘ ২৮ বছর পর বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদে নের্তৃত্ব দিতে ভোটে লড়ছেন ছাত্র নেতারা। এটি ডাকসুর ৩৭তম নির্বাচন। ইতিহাস বলে ডাকসুর নেতৃত্বে যারা ছিলেন, তারাই পরবর্তীতে দেশের রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।

১৯২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) সৃষ্টি হয়। তখন ডাকসুর প্রথম ভিপি ও সাধারণ সম্পাদক (জিএস) নির্বাচিত হন যথাক্রমে মমতাজ উদ্দিন আহমেদ ও যোগেন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত। 

১৯২৮-২৯ শিক্ষাবর্ষে ভিপি ও জিএস হিসেবে নির্বাচিত হন এএম আজহারুল ইসলাম ও এস চক্রবর্তী। ১৯২৯-৩২ শিক্ষাবর্ষে রমণী কান্ত ভট্টাচার্য ভিপি ও যৌথভাবে কাজী রহমত আলী-আতাউর রহমান জিএস হিসেবে নির্বাচিত হন।

১৯৪৭-৪৮ শিক্ষাবর্ষে অরবিন্দ বোস ভিপি ও যুদ্ধাপরাধের দায়ে দণ্ডিত গোলাম আযম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হন। ১৯৫৩-৫৪ সালে এসএ বারী এটি ছিলেন সভাপতি। যৌথভাবে জিএস হন- জুলমত আলী খান-ফরিদ আহমেদ।

এরপর ভিপি ও জিএস নির্বাচিতদের মধ্যে রয়েছেন যথাক্রমে- নিরোদ বিহারী নাগ ও আব্দুর রব চৌধুরী, একরামুল হক ও শাহ আলী হোসেন, বদরুল আলম ও মো. ফজলী হোসেন, আবুল হোসেন ও এটিএম মেহেদী।

১৯৫৭-৫৮ শিক্ষাবর্ষে ভিপি ছিলেন- আমিনুল ইসলাম তুলা ও জিএস ছিলেন- আশরাফ উদ্দিন মকবুল। এরপর ভিপি-জিএস ছিলেন যথাক্রমে বেগম জাহানারা আখতার ও অমূল্য কুমার,এসএম রফিকুল হক ও এনায়েতুর রহমান।

১৯৬২-৬৩ শিক্ষাবর্ষে ভিপি ছিলেন শ্যামা প্রসাদ ঘোষ এবং জিএস ছিলেন কে এম ওবায়েদুর রহমান। ১৯৬৩-৬৪ শিক্ষাবর্ষে ভিপি ছিলেন রাশেদ খান মেনন এবং জিএস ছিলেন মতিয়া চৌধুরী।

এরপর ভিপি-জিএস হন যথাক্রমে বোরহান উদ্দিন ও আসাফুদ্দৌলা, ফেরদৌস আহমেদ কোরেশী ও শফি আহমেদ, মাহফুজা খানম ও মোরশেদ আলী, তোফায়েল আহমেদ ও নাজিম কামরান চৌধুরী, আ স ম আব্দুর রব ও জাতীয় বীর আব্দুল কুদ্দুস মাখন।

১৯৭২-৭৩ শিক্ষাবর্ষে ভিপি-জিএস নির্বাচিত হন- মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও মাহবুবুর জামান। ১৯৭৯ সালে ভিপি-জিএস হন মাহমুদুর রহমান মান্না ও আখতারুজ্জামান। ১৯৮০ সালে ভিপি-জিএস হন মাহমুদুর রহমান মান্না ও আখতারুজ্জামান। ১৯৮২ সালে ভিপি-জিএস হন আখতারুজ্জামান ও জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। 

১৯৮৯-৯০ শিক্ষাবর্ষে ভিপি-জিএস হন সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ ও মুশতাক হোসেন। এবং সর্বশেষ ১৯৯০-৯১ শিক্ষাবর্ষে ভিপি-জিএস হন আমান উল্লাহ আমান ও খায়রুল কবির খোকন।

দৈনিক যশোর
দৈনিক যশোর
এই বিভাগের আরো খবর